মাধ্যমিক ভূগোল প্রথম অধ্যায় ১ নম্বরের প্রশ্ন ও উত্তর

 মাধ্যমিক ভূগোল প্রথম অধ্যায় ১ নম্বরের প্রশ্ন ও উত্তর

মাধ্যমিক ভূগোল প্রথম অধ্যায় ১ নম্বরের প্রশ্ন ও উত্তর


  1. আটাকামা ও বৃহৎ অস্ট্রেলীয় মরুভূমি পৃথিবীর যে গােলার্ধে অবস্থিত-দক্ষিণ।

  2. আবহবিকার ও ক্ষয়ীভবনকে একত্রে বলে-  নগ্নীভবন।

  3. আবহবিকারের ফলে উৎপন্ন হয়-  মাটি ।

  4. ইনসেলবার্গ একটি – অবশিষ্ট পাহাড়।

  5. উৎপাটন হল হিমবাহের দ্বারা সংঘটিত যে পদ্ধতি – ক্ষয়।

  6. কোনাে উচ্চভূমি থেকে বরফের চাপে নেমে আসা বরফের স্তূপকে বলে-  হিমবাহ।

  7. করি উপত্যকায় সৃষ্ট হ্রদকে বলে – টার্ন।

  8. করি বলতে বােঝায় –সার্ক।

  9. করির মাথার দিকে অবস্থিত গভীর ফাটলকে বলে- বার্গশ্রুন্ড।

  10. ক্রেভাস হল হিমবাহের দেহে অবস্থিত – ফাটল।

  11. ক্র্যাগ ও টেল-এর যে ঢালটি খাঁজকাটা অমসৃণ প্রকৃতির –ক্র্যাগ।

  12. ক্ষয়জাত পদার্থের সঞ্চয় ও পুঞ্জীভবনকে একত্রে বলে – আরােহণ।

  13. ক্ষয়সাধনের ফলে- উচ্চতা কমে।

  14. খনিজের ফেরাস অক্সাইড থেকে ফেরিক অক্সাইডে পরিণতি হল-  রাসায়নিক আবহবিকার ।

  15. খনিজের সঙ্গে কার্বন ডাইঅক্সাইডের রাসায়নিক সংযােগের প্রক্রিয়া হল– অঙ্গরযােজন।

  16. গৌর বা গাড়া ভূমিরূপটির আকৃতি যার মতাে –ব্যাঙের ছাতা।

  17. জিউগেন ভূমিরূপটি যার কাজের ফলে গঠিত হয়—বায়ু।

  18. যে জলবায়ু অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি রাসায়নিক আবহবিকার ঘটে – ক্রান্তীয় মৌসুমি অঞ্চল।

  19. যে দেশকে ‘ফিয়র্ডের দেশ’ বলা হয়— নরওয়ে।

  20. যে বহির্জাত শক্তির অবক্ষেপণের ফলে লােয়েস সমভূমি গড়ে ওঠে- বায়ু।

  21. যে ভূমিরূপটি ডিমের ঝুড়ি ভূমিরূপ (Egg in a basket) গঠন করে—ড্রামলিন।

  22. যে শক্তিটি বহির্জাত প্রক্রিয়া হিসাবে কাজ করে – বায়ুপ্রবাহ।

  23. যেটি অবরােহণ প্রক্রিয়া নয় – নদীর সঞ্চয় কার্য।

  24. নিম্ন অক্ষাংশের উষ্ণ মরু অঞ্চল উপক্রান্তীয়উচ্চচাপ বলয়ে অবস্থিত

  25. নিম্ন অক্ষাংশের মরু অঞ্চল মহাদেশের  পশ্চিমদিকে অবস্থিত

  26. নদী, বায়ু, হিমবাহ – এদের মধ্যে মিল হল, এরা –  বহির্জাত প্রক্রিয়া।

  27. নদী, হিমবাহ, বায়ুপ্রবাহ ইত্যাদি হল- বহির্জাত প্রক্রি।

  28. পৃথিবীর বৃহত্তম সুপেয় জলের সঞ্চয় হল— হিমবাহ।

  29. বাখানের আকৃতি – অর্ধচন্দ্রাকার।

  30. বায়ুর কাজের প্রধান এলাকা হল পৃথিবীর –মরু অঞ্চল

  31. বার্গশ্রুন্ডহল এক ধরনের – ফাটল।

  32. বালিকণা সৃষ্টি হয় –শিলা থেকে।

  33. বিভিন্ন ক্ষয়জাত ভূমিরূপ গঠনকারী পদ্ধতির নাম হল—  অবরােহণ ।

  34. বিভিন্ন সঞ্চয়জাত ভূমিরূপ গঠিত হয় যে পদ্ধতিতে তাকে বলে – আরােহণ।

  35. বর্তমান কালে সারা পৃথিবীজুড়ে হিমরেখার উচ্চতা বেড়ে চলেছে, কারণ—জলবায়ু পরিবর্তন।

  36. বৃষ্টিবহুল ক্রান্তীয় অঞ্চলে যেটি সবচেয়ে বেশি ঘটে – জৈব এবং রাসায়নিক আবহবিকার ।

  37. বহিঃবিধৌত সমভূমির ওপর বরফের স্তূপের গলনের ফলে উদ্ভূত গর্তকে বলে – কেটল বা কেটল হ্রদ

  38. বহির্জাত প্রক্রিয়া ভূপৃষ্ঠে যে কাজ করে, তা হল-  ক্ষয়, সয় ও বহন।

  39. বহির্জাত প্রক্রিয়া হল- ভূপৃষ্ঠের ওপরের প্রক্রিয়া।

  40. বহির্জাত প্রক্রিয়ায় ফলাফল যেখানে দেখা যায় –  ভূপৃষ্ঠের ওপরে।

  41. বহির্জাত প্রক্রিয়ার একটি উৎস হল – নদী।

  42. বহির্জাত প্রক্রিয়ার শক্তির উৎস হল- ভূপৃষ্ঠের ওপরে

  43. ভারতের যােধপুরসেন্ট্রাল অ্যারিড জোন রিসার্চ ইন্সটিটিউট অবস্থিত।

  44. ভূমিভাগের ঢাল হ্রাস পায় যে পদ্ধতিতে – অবরােহণ ।

  45. মাধ্যমিক ভূগোল প্রথম অধ্যায় ১ নম্বরের প্রশ্ন ও উত্তর Part-3

  46. মেরু অঞ্চলে অবস্থিত হিমবাহ হল –মহাদেশীয় হিমবাহ।

  47. মরু অঞ্চলে ক্ষয়ের নিম্নসীমা হল— প্লায়া।

  48. মরু অঞ্চলে চলমান বালিয়াড়িকে বলে—ধ্রিয়ান।

  49. মরু অঞ্চলে বায়ুর ক্ষয়কাজের প্রধান উপাদান হল-বালুকণা

  50. মরুভূমি অঞ্চলে যে পদ্ধতি সবচেয়ে বেশি কার্যকর – যান্ত্রিক আবহবিকার।

  51. রাজস্থানের সম্বর হ্রদ একটি – প্লায়া হ্রদ।

  52. রাসায়নিক আবহবিকারে যার প্রভাব সবচেয়ে বেশি- জল।

  53. রসে মতানের যে ঢালটি মৃদু ও মসৃণ প্রকৃতির – স্টস।

  54. শিলায় মরিচার আস্তরণ সৃষ্টির ঘটনা হল –  রাসায়নিক আবহবিকার ।

  55. শীতপ্রধান অঞ্চল যে পদ্ধতি সবচেয়ে বেশি কার্যকর – যান্ত্রিক আবহবিকার।

  56. সক্ষয়সাধনের ফলে– উচ্চতা বাড়ে।

  57. সূক্ষ্ম বালুকণাকে বায়ু যে পদ্ধতিতে অপসারণ করে—ভাসমান।

  58. সাহারা ও নামিব মরুভূমি যে মহাদেশে অবস্থিত –আফ্রিকা।

  59. সাহারা ও মােহাভি মরুভূমি পৃথিবীরউত্তরগােলার্ধে অবস্থিত।

  60. সাহারামরুভূমিকে সিফকে গাসি বলে।

  61. সিফ একটি –বালিয়াড়ি।

  62. স্থায়ী তুষার ক্ষেত্র এবং অস্থায়ী তুষার ক্ষেত্রের সীমারেখাকে বলে – হিমরেখা।

  63. সমুদ্রজলে ভাসমান বরফের স্তূপকে বলে – হিমশৈল।

  64. হিমবাহ অধ্যুষিত অঞ্চলে খাঁজকাটা শৈলশিরাকে বলে— এরিটি/অ্যারেট।

  65. হিমবাহ গঠিত উপত্যকা সমুদ্র জলে নিমজ্জিত হলে যে উপকূলের সৃষ্টি হয় – ফিয়র্ড।

  66. হিমবাহের প্রান্তসীমায় যে সমভূমি গড়ে ওঠে তাকে বলে— বহিঃবিধৌত সমভূমি।

  67. হেমাটাইট থেকে লিমােনাইটের উদ্ভব হল – রাসায়নিক আবহবিকার । 

File Details –

PDF Name / Book Name  মাধ্যমিক ভূগোল প্রথম অধ্যায় ১ নম্বরের প্রশ্ন ও উত্তর 
Language : Bengali
Size : 444 kb
Download Link : Click Hereto Download

                                                                               

Leave a Comment