স্তূপ পর্বত ও গ্রস্থ উপত্যকা

স্তূপ পর্বত ও গ্রস্থ উপত্যকা

স্তূপ পর্বত ও গ্রস্থ উপত্যকা


ভূ-আলােড়নজনিত টানের ফলে শিলাস্তরে ফাটল ও চ্যুতি দেখা দিলে দুটি চ্যুতির মধ্যবর্তী অংশ বসে গিয়ে বা উঁচু হয়ে স্কুপ পর্বত ও গ্রস্ত উপত্যকার সৃষ্টি করে।

স্তূপপর্বতের উপরিভাগ চ্যাপটা এবং দু-পাশের ঢাল খুব খাড়া হয়।পর্বতের মাঝের নীচু অংশ বা গ্রস্ত উপত্যকার মধ্যে দিয়ে নদী প্রবাহিত হয়। ১

উদাহরণ: ভারতের সাতপুরা, ইউরােপের ভােজ প্রভৃতি স্তূপ পর্বত এবং ভারতের নর্মদা নদী উপত্যকা গ্রস্ত উপত্যকা।

2. ক্ষয়জাত পর্বত

 বিভিন্ন বহির্জাত শক্তিগুলির ক্ষয়ের প্রভাবে এবং আবহবিকার ও নগ্নীভবনের ফলে ভঙ্গিল, স্তূপ, আগ্নেয় প্রভৃতি পর্বত ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে ক্ষয়জাত পর্বতে পরিণত হয়।

২)ক্ষয়কার্যের পর অবশিষ্ট অংশ দ্বারা এই পর্বত গঠিত হয়। বলে একে অবশিষ্ট পর্বতও বলে।

3) এই পর্বতের আকৃতি অনেকটা গম্বুজের মতাে এবং শিখরদেশ কিছুটা চ্যাপটা হয়।

4)বেশিরভাগ ক্ষয়জাত পর্বত কঠিন আগ্নেয় ও রূপান্তরিত শিলা দ্বারা গঠিত।

5)কম উচ্চতাযুক্ত এবং মৃদু ঢালযুক্ত এই পর্বতগুলি প্রাচীন প্রকৃতির হয়।

উদাহরণ: ভারতের আরাবল্লি, ইউরােপের ক্যালিডােনিয়ান, আমেরিকার অ্যাপালেসিয়ান প্রভৃতি।

 3. ব্যবচ্ছিন্ন মালভূমি

নদী, বায়ু, হিমবাহ প্রভৃতি বহির্জাত শক্তি দ্বারা প্রাচীন মালভূমি ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে ব্যবচ্ছিন্ন মালভূমির সৃষ্টি হয়।

এই মালভূমির শিখরদেশ চ্যাপটা হয় এবং একাধিক একই উচ্চতাযুক্ত মালভূমি পাশাপাশি অবস্থান করে।

উদাহরণ: ছােটোনাগপুর মালভূমি, কর্ণাটক মালভূমি প্রভৃতি।

পলিগঠিত সমভূমি

পৃথিবীর অধিকাংশ সমভূমির মধ্যে উল্লেখযােগ্য হল নদীর সঞ্চয় কাজের ফলে বিভিন্ন পলিগঠিত সমভূমি। এদের বৈশিষ্ট্যগুলি হল।

1)এই সমভূমিগুলি বহির্জাত শক্তি প্রধানত নদীর সঞ্চয়ের ফলে গঠিত হয়।

2)পলিগঠিত সমভূমি নদীতীরবর্তী অঞ্চলে নবীন মাটি ও নদী দূরবর্তী স্থানে প্রাচীন মাটি দ্বারা গঠিত হয়।

3) পলিগঠিত সমভূমিগুলি বয়সে অনেক নবীন এবং এদের গঠনকাজ এখনও চলছে।

উদাহরণ : ভারতের সিধু-গঙ্গা-ব্রক্ষ্মপুত্রের সমভূমি, ইন্দোচিনের সমভূমি, ইয়াংসি কিয়াং সমভূমি উল্লেখ্য।

5. ক্ষয়জাত সমভূমি

1)নদী, হিমবাহ, বায়ু প্রভৃতি বহির্জাত শক্তি ক্ষয়কার্যের ফলে ক্ষয়জাত সমভূমি গঠিত হয

2) ক্ষয়জাত সমভূমিগুলিতে বিস্তীর্ণ অঞ্চলজুড়ে সমভূমি ও বহুদূরে ছােটো ছােটো টিলা দেখতে পাওয়া যায়

 (3) এই সমভমির ঢাল খুব মৃদু এবং উপরিপৃষ্ঠ তরঙ্গায়িত হয়।

4) আর্দ্র নদীগঠিত অঞ্চলে ক্ষয়জাত সমভূমিকে পেনিপ্লেন এবং শুষ্ক মরু অঞলকে পেডিপ্লেন বলা হয়। > 

উদাহরণ: সাইবেরিয়ার ইয়টিস সমভূমি, দক্ষিণ আফ্রিকার সমভূমি হল উল্লেখযােগ্য ক্ষয়জাত সমভূমি।

লােয়েস সমভূমি

1)বায়ুতাড়িত হলদে রঙের চুনময় অতিসূক্ষ্ম কণা দ্বারা গঠিত সমভূমিকে লােয়েস সমভূমি বলে। 

2) লােয়েস একটি জার্মান শব্দ, যার অর্থ স্থানচ্যুত বস্তু। 

3) উৎস অঞল থেকে বায়ুপ্রবাহের দ্বারা বহুদূরে বাহিত হয়ে লােয়েস সমভূমির সৃষ্টি হয়।

উদাহরণ: উত্তর চিনের হােয়াং হাে নদীর অববাহিকায় লােয়েস সমভূমি গঠিত হয়েছে।

 

Leave a Comment