অষ্টম শ্রেণি ষষ্ঠ অধ্যায় জলবায়ু অঞ্চল 2 নম্বরের প্রশ্ন উত্তর ভূগোল

1. নিরক্ষীয় জলবায়ু অঞ্চল (Equatorial Climatic Region) কাকে বলে ? অথবা, ক্রান্তীয় বৃষ্টি অরণ্য জলবায়ু বলতে কী বোঝায় ?

Table of Contents

উ:- উভয় দিকে 5-10° উত্তর ও দক্ষিণ অক্ষাংশের মধ্যবর্তী অঞলে যে-সমস্ত স্থানে বার্ষিক বৃষ্টিপাতের পরিমাণ প্রায় 250–300 সেমি ও উন্নতা সারাবছরই 25°-30°C থাকে এবং যেখানে গভীর চিরহরিৎ বনভূমি গড়ে উঠেছে, তাকেই নিরক্ষীয় জলবায়ু অঞল বা ক্রান্তীয় বৃষ্টি অরণ্য জলবায়ু বলা হয়।

i. নিরক্ষীয় জলবায়ুর অবস্থান আলচনা করো। অথবা, নিরক্ষীয় জলবায়ু পৃথিবীর কোন্ কোন্ অঞ্চলে লক্ষ করা যায় তা উল্লেখ করো।

ii. অক্ষাংশগত অবস্থান : নিরক্ষরেখার উভয় দিকে 5° থেকে 10° উত্তর-দক্ষিণ অক্ষাংশের মধ্যবর্তী স্থানে এই জলবায়ুর প্রভাব লক্ষ করা যায়।

iii. দক্ষিণ আমেরিকা : আমাজন নদীর অববাহিকা।

iv. আফ্রিকা: কঙ্গো বা জাইরে নদী অববাহিকা ।               

v. দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া : ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ফিলিপাইল্স প্রভৃতি দেশে ।

vi. ভারত : দক্ষিণ-পশ্চিম অংশ ।

vii.  শ্রীলঙ্কা : দক্ষিণ অংশ।

viii. কলম্বিয়া : পশ্চিম উপকূল।

ix. মাদাগাস্কা : পূর্বাংশ।

x. মধ্য-আমেরিকা : পানামা, কোস্টারিকা, ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের কিছু অঞ্চল প্রভৃতি।

3. সেলভা অরণ্যের উদ্ভিদদের নাম লেখো।

উ:- সেলভা অরণ্যে রবার, রোজউড, ব্রাজিল নাট, আয়রন উড, বাঁশ, মেহগনি, পাম, কোকো, সিঙ্কোনা প্রভৃতি উদ্ভিদ লক্ষ করা যায়

4. নিরক্ষীয় জলবায়ু অঞ্চলের আদিম উপজাতিদের নাম লেখো।

উ:- জাইরে ও আমাজন অববাহিকার তুলনায় দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার নিরক্ষীয় অঞ্চলে লোকবসতি বেশি।

5. পিগমি সম্প্রদায় দাও।

উ:- পিগমি পৃথিবীর সবথেকে কম উচ্চতার জনগোষ্ঠী। এরা মধ্য-আফ্রিকার কঙ্গো নদী অববাহিকায় বসবাস করে। এদের উচ্চতা 150 সেমি বা 4 ফুট 11 ইঞি হয়। এদের মধ্যে যারা একটু লম্বা তাদের পিগময়েড বলা হয়। এরা নিগ্রয়েড সম্প্রদায়ের মানুষজন। কঙ্গো অববাহিকায় প্রায় 2,50,000 থেকে 6,00,000 পিগমি উপজাতির মানুষ বসবাস করছে।

6.রেড ইন্ডিয়ান সম্প্রদায় সম্পর্কে ধারণা দাও ?

উ:- উচ্চ আমাজন অববাহিকায় রেড ইন্ডিয়ান উপজাতি সম্প্রদায় বসবাস করে। এরা শিকার বৃত্তির মাধ্যমে জীবিকানির্বাহ করে। এরা হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জ পশ্চিম ভারতীয় দ্বীপপুঞ্জ, দক্ষিণ আমেরিকা ও উত্তর আমেরিকার দক্ষিণ দিকে ছড়িয়ে আছে। বর্তমানে এরা কিছুটা উন্নত হয়েছে ও প্রাচীন জীবিকাসত্তাভিত্তিক করছে।

7.বান্টু উপজাতিদের সম্পর্কে লেখো।

উ:- নাইজার ও কঙ্গো নদী অববাহিকায় মূলত বান্টু উপজাতিদের দেখা যায়। Bantu মানে হল humans বা People। দক্ষিণ আফ্রিকা অঞ্চলে প্রায় 50,000 বান্টু উপজাতির মানুষ বসবাস করে। এদের প্রধান জীবিকা হল বনের ফলমূল সংগ্রহ ও শিকার করা এবং প্রাচীন জীবিকাসত্তাভিত্তিক কৃষিকাজ করা ।

8.সেমাং ও সাকাই উপজাতিদের সম্পর্কে লেখো।

উ:- দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় পাহাড়ি অঞ্চলে সেমাং ও সাকাই উপজাতিরা বসবাস করে। এরা বর্তমানে রবার বাগিচাগুলিতে কৃষক রূপে জীবিকানির্বাহ করছে। এ ছাড়া পাহাড়ি ঢলে জুমচাষ করেও এরা জীবিকা অর্জন করে।

9.নিরক্ষীয় অঞ্চলের স্বাভাবিক উদ্ভিদের নামগুলি লেখো।

উ:- নিরক্ষীয় অঞ্চলে সারাবছর বৃষ্টি হয় বলে চিরহরিৎ বৃক্ষশ্রেণি লক্ষ করা যায়। ব্রাজিলের আমাজন অববাহিকা, আফ্রিকার কঙ্গো অববাহিকাতে রবার (হিভিয়া প্রজাতি), রোজ উড, ব্রাজিল নাট, আয়রন উড, মেহগনি, পাম, কোকো, সিঙ্কোন ইত্যাদি বৃক্ষ জন্মায়। পাহাড়ের পাদদেশগুলিতে বাঁশ গাছ প্রচুর জন্মায়। উপকূল অঞলে তাল, নারিকেল, পাম গাছ জন্মায় এবং খাড়িগু লিতে ম্যানগ্রোভ উদ্ভিদ প্রজাতি লক্ষ করা যায়। এ ছাড়াও প্রত্যেকটি বৃষ্টি-অরণ্যে অসংখ্য লতানো গাছ, গুল্ম ও পরগাছা লক্ষ করা যায়

10.নিরক্ষীয় অঞ্চলে স্বাভাবিক উদ্ভিদের নাম লেখ ?

উ:- ঘন ও দুর্ভেদ্য অরণ্যে গাছে চড়তে পারে এমন পশুপাখি ও জীবজন্তুর আধিক্য দেখা যায়। বাঁদর, গােরিলা, শিম্পাঞ্জি, ওরাংওটাং, বিভিন্ন রকম সাপ, পাখি, বিষাক্ত কীটপতঙ্গ দেখা যায়। অরণ্যের তলদেশে হরিণ, গন্ডার, হাতি, জেব্রা ও নদী-জলাশয়ে প্রচুর কুমির, জলহস্তী রয়েছে।

You Can Read More…..
ব্যাখ্যা মূলক 2 নম্বরের প্রশ্ন উত্তর ভূগোল
অষ্টম শ্রেণি চতুর্থ অধ্যায় চাপবলয় ও বায়ুপ্রবাহ 2 নম্বরের প্রশ্ন উত্তর ভূগোল


 

1.নিরক্ষীয় অঞ্চলে সারাবছর উম্ন-আর্দ্র গ্রীষ্মঋতু লক্ষ করার কারণ কী ? অথবা, নিরক্ষীয় অঞ্চলে সারাবছর একটিই ঋতু দেখতে পাওয়ার কারণ কী ?

উ:- নিরক্ষীয় অঞ্চলে সারাবছরই উন্ন-আর্দ্র গ্রীষ্মঋতু লক্ষ করা যায়। এর কারণগুলি হল—

i.নিরক্ষীয় অঞ্চলের ওপর সূর্যরশ্মি লম্বভাবে কিরণ দেয়।

ii. দিনরাত্রি প্রায় সমান হয় (12 ঘণ্টা দিন, 12 ঘণ্টা রাত্রি)।

iii. ঋতুচক্র লক্ষ করা যায় না।

iv. জলভাগের পরিমাণ বেশি হওয়ার জন্য প্রচুর পরিমাণে জলীয় বাষ্প বায়ুতে মেশে।

v. বাষ্পীয় প্রস্বেদনের হার বেশি।

vi. আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ বেশি। চাষ হয় বাগিচা কৃষির মাধ্যমে।

2.  নিরক্ষীয় অরণ্যের তলদেশ দিনের বেলাতেও অন্ধকার দেখার কারণ কী ?

উ:- নিরক্ষীয় অরণ্যে বিভিন্ন প্রজাতির ও বিভিন্ন উচ্চতার উদ্ভিদ লক্ষ করা যায়। এদের মধ্যে সর্বোচ্চ উদ্ভিদ শ্রেণিটি পাশাপাশি অবস্থান করে চাঁদোয়ার সৃষ্টি করে। ফলে সূর্যের আলো দিনের বেলাতেও মাটিতে এসে পৌঁছাতে পারে না। এইজন্য নিরক্ষীয় অরণ্যের তলদেশ দিনের বেলাতেও অন্ধকার দেখায়।

Leave a Comment