Class 8 Model Activity Task SASTHO O SORIR SIKHA (September) Part 6 Question & Answers

Class 8 Model Activity Task SASTHO O SORIR SIKHA (September) Part 6 Question & Answers // মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক অষ্টম শ্রেণি  স্বাস্থ্য ও শরীর শিক্ষা পার্ট-৬ সেপ্টেম্বর (All subject September Model Activity Task Class -8)

Class 8 Model Activity Task SASTHO O SORIR SIKHA (September) Part 6 Question & Answers

 

স্বাস্থ্যশিক্ষা ও যোগাসন

 

 

১. শূন্যস্থান পূরণ করো :

(ক) গ্রামের খোলা জায়গায়     মলত্যাগের     কোনো চিহ্ন থাকবে না । 

 

(খ) সমস্ত জলের উৎসে যথার্থ সিমেন্টের    চাতাল        জল      নিকাশের ব্যবস্থা রাখতে হবে ।

 

(গ) প্রতিটি শৌচাগারে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও স্বাভাবিক   আলো   বাতাসের   সংস্থান রাখতে হবে ।

 

(ঘ) খাটাল, শূকরের খামার, মুরগির পোলট্রি প্রভৃতি অতি ঘন   জনবসতিপূর্ণ   এলাকা থেকে দূরে রাখতে হবে ।

 

(ঙ) গ্রামের পরিবেশ   নির্মল    করে গড়ে তোলবার জন্য বৃক্ষরোপণ ও সবুজায়নের উপর অধিক গুরুত্ব আরোপ করতে হবে ।

 

(চ) নলকূপ ও নদীর জল   নিরাপদ    পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে ।

 

(ছ) জনস্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য সার্বিক স্বাস্থ্যবিধান অভিযানকে একটি   সামাজিক আন্দোলনের রূপ দিতে হবে । 

 

২. বহুর মধ্যে থেকে সঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে ‘‘ চিহ্ন দাও :  ১ × ৩ = ৩

(ক) এই আসনটি দীর্ঘদিন অনুশীলন করলে হাতের পেশি সুগঠিত হয় । কাঁধ, ঘাড় ও পিটার শক্তি বৃদ্ধি পায় । হজম শক্তি বৃদ্ধি পায় । কিন্তু কোমরে, হাঁটুতে ও হাতে চোট-আঘাত থাকলে এই আসনটি অভ্যাস করা উচিত নয় ।

এই আসনটির নাম কী ?

(১) কুক্কুটাসন  (২) বজ্রাসন  (৩) তুলাদন্ডাসন 

উ:- (1) কুক্কুটাসন

 

(খ) এই আসনটির অভ্যাসের সময় শ্বাসক্রিয়া স্বাভাবিক থাকে । এই আসন অনুশীলনের ফলে মেরুদণ্ডের নমনীয়তা বৃদ্ধি পায় । পিঠের মাংসপেশিগুলিকে সুস্থ ও সবল রাখে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয় । এই আসনটির নাম কী ?

(১) গুপ্তাসন  (২) হলাসন  (৩) পবনমুক্তাসন 

উ:- (2) হলাসন

 

(গ) পা জোড়া রেখে সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে কোমরের উপরের অংশকে সামনের দিকে বাঁকিয়ে কপাল হাঁটুকে স্পর্শ করে থাকবে এবং হাতদুটি পায়ের দু-পাশে মাটি স্পর্শ  করবে ।এই আসনটির নাম কী ?

(১) পশ্চিমোত্তাসন  (২) হলাসন  (৩) পদহস্তাসন

উ:- (3) পদহস্তাসন 

 

৩. (ক) এই করোনাকালে তুমি তোমার সহপাঠীদের ফুসফুসের বায়ু চলাচলের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য কোন প্রাণায়ামটি অনুশীলনের সুপারিশ করবে ?  

উ:-  অনুলোম-বিলোম প্রাণায়ামটি অনুশীলনের সুপারিশ করবো ।

 

(খ) এই প্রাণায়ামটির শ্বাসক্রিয়া, অনুশীলনের পদ্ধতি, সময়কাল, উপকারিতা ও সতর্কতা বর্ণনা করো ।  ৫

উ:- শ্বাসক্রিয়া : ধীরে ধীরে ডান নাক দিয়ে বায়ু গ্রহণ করে বাঁ-নাক দিয়ে ধীরে ধীরে ছাড়তে হয় ।

 

অনুশীলনের পদ্ধতি :

i.প্রথমে পদ্মাসনে অথবা সুখাসনে অথবা সুখগোমুখাসনে বসতে হয় ।

ii.তারপর ডান হাতের তালু চিত করে তর্জনী ও মধ্যমা ভাঁজ করে অনামিকা ও কনিষ্ঠা আঙুলদ্বয়ের সাহায্যে বাঁ-নাসাপথ বন্ধ করে ধীরে ধীরে অতি মৃদুমন্দ গতিতে ডান নাসাপথে বায়ু গ্রহণ করতে হয় ।

iii. যতটা সম্ভব শ্বাস নিতে হয় । তারপর বৃদ্ধাঙ্গুলি দিয়ে ডান নাসাপথ বন্ধ করে বাঁ নাসা খুলে দিয়ে ধীরে ধীরে শ্বাস ছাড়তে হয় ।

সময়কাল : মনে মনে ছয় থেকে দশ গোনা পর্যন্ত শ্বাসগ্রহণ ও শ্বাসত্যাগ করতে হয় অনেকে শ্বাসগ্রহণ অপেক্ষা শ্বাস ছাড়ার সময়কাল দীর্ঘ করেন । আবার অনেকে শ্বাস নেওয়া ছাড়ার পথে কুম্ভক বা দম বন্ধ করে অভ্যাস করেন ।

উপকারিতা : 

i. মানসিক অবসাদ, ক্লান্তি, মনের অস্থিরতা দূর করে ।

ii.স্মরণশক্তি বৃদ্ধি করে ।

iii. নাকের ভিতরের সমস্যা দূর করে ।

iv.ব্লাড প্রেশার ও হৃদরোগ সারাতে এই প্রাণায়ামটি বিশেষ উপকারী ।

 

v. সতর্কতা : যাদের হার্টের রোগ, হাই ব্লাড প্রেশার আছে তাদের কুম্ভক না করাই শ্রেয় । যাদের ফুসফুস অতি দুর্বল, যারা শ্বাসগ্রহণ করবার পর পূর্ণাঙ্গভাবে শ্বাস ছাড়তে পারে না তাদের চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া এই প্রাণায়ামটি করা উচিত নয় ।

 

(গ) দীর্ঘ ১৫ দিন এই প্রাণায়ামটি অনুশীলনের পরে তুমি তোমার উপলব্ধি বর্ণনা করো

উ:- দীর্ঘ ১৫ দিন এই প্রাণায়ামটি অনুশীলনের পরে আমার নিম্নলিখিত উপকারগুলি হয়েছে

(i) আমার শ্বাসকার্যের সমস্যা দূর হয়েছে ।

(ii) আমার স্মরণশক্তি কিছুটা হলেও বৃদ্ধি পেয়েছে ।

(iii) শ্বাসকার্যের সময় আমার নাসারন্ধ্র বন্ধ হয়েযাওয়ার যে সমস্যাটি ছিল সেটি একটু কমেছে ।

 

৪. সংক্ষিপ্ত আকারে প্রশ্নের উত্তর দাও :

(ক) সংক্রামক রোগ প্রতিরোধের পদক্ষেপগুলি তালিকাভুক্ত করো ।   ৪

উ:- সংক্রামক রোগ প্রতিরোধের পদক্ষেপগুলি নিচে আলোচনা করা হলো

i.নিয়মিত এবং কিছক্ষন পর পর ভালো করে সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে । বিশেষ করে খাওয়ার আগে হাত ধুতেই হবে ।

ii.বাড়ির মেঝে, উঠোন ভালোমতো পরিষ্কার করে রাখতে হবে ।

iii.উপলব্ধ থাকলে সেই বিশেষ সংক্রামক রোগটির টিকা নিয়ে রাখতে হবে ।

iv.নিজের ব্যবহার করা জিনিস যাতে অন্য কেউ ব্যবহার না করে সেই বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে ।

v.যদি সংক্রামক রোগটি বায়ুবাহিত হয়ে থাকে বা নাক মা মুখ দিয়ে দেহে প্রবেশের সম্ভাবনা থাকে তবে সেই ক্ষেত্রে মুখে মাস্ক পরে থাকতে হবে ।

vi.স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হবে ।

 

(খ) কোনো দেশের মানব উন্নয়ন সূচক কিসের উপর নির্ভর করে ?   ৪

উ:- কোনো দেশের মানব উন্নয়ন সূচক নিম্নলিখিত বিষয়ের ওপর নির্ভর করে :

i.সেই দেশের মানুষের গড় আয়ুর ওপর, 

ii.সেই দেশের মানুষের স্বাস্থ্য ও জীবন, জন্মের সময় জীবনের প্রত্যাশার ওপর,

iii.সেই দেশের মানুষের শিক্ষার হারের ওপর,

iv. সেই দেশের মানুষের জীবন ধরণের মানের ওপর ।

 

(গ) বিদ্যালয়ের স্বাস্থ্যশিক্ষার সুফলগুলি লেখো ।   ৪

উ:- বিদ্যালয়ের স্বাস্থ্যশিক্ষার সুফলগুলি নিমরুপ :

i.উন্নত শিক্ষার পরিবেশ গড়ে ওঠে ।

ii.বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের অধিক নামাঙ্কন হয়  ।

iii.শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে উপস্থিতির হার বাড়ে ।

iv.পড়ুয়াদের দক্ষতা ও সুস্থতা বৃদ্ধি পায় ।

v.বিদ্যালয়ে নির্মল ও স্বচ্ছ পরিবেশ গড়ে ওঠে  ।

vi.শিশুদের অধিকার সুরক্ষিত হয় ।

Leave a Comment