Class 10 History 2 Marks Suggestion 2022 with PDF Notes

Class 10 History 2 Marks Suggestion 2022 with PDF Notes নীচে প্রদান করা হল-

1.নতুন সামাজিক ইতিহাস কী?

যে ইতিহাসচর্চায় রাজা-মহারাজা বা অভিজাত প্রভৃতি উচ্চবর্গীয় ও সমাজের মানুষ ছাড়াও সমাজের নিম্নবর্গের সাধারণ মানুষ যেমন কৃষক, শ্রমিক, নারী, এমনকি সমাজের অবহেলিত প্রান্তিক, অন্ত্যজদের  কথা গুরুত্ব সহকারে আলোচিত হয়, তাকে নতুন সামাজিক ইতিহাস’ বলা হয়। সমাজের সর্বস্তরের মানুষকে নিয়ে চলে এই ইতিহাসচর্চা। 1960 ও 1970-এর দশকে ইউরোপ ও আমেরিকাতে নতুন সামাজিক ইতিহাসচর্চার সূচনা হয়।

2.ফটোগ্রাফ কিভাবে আধুনিক ভারতের ইতিহাস চর্চার উপাদান হয়ে উঠেছে?

আধুনিক ইতিহাসচর্চার বিভিন্ন উপাদানের মধ্যে ফটোগ্রাফ একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। ফোটোগ্রাফির মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের ছবিকে কামেরাবন্দি করা যায়। এগুলি কোন গুরুত্বপূর্ন ঘটনা, কোন মহান ব্যক্তি, কোন হত্যাকাণ্ড বা অন্য কিছু হতে পারে। যা ফটোগ্রাফিতে হয়ে ওঠে প্রামান্য বিষয়।

গুরুত্বঃ- 

1) ফটোগ্রাফি ইতিহাসচর্চার নতুন উপাদান সরবরাহ করতে পারে।

2) প্রচলিত তথ্য বা ঘটনার সত্যতা ফোটোগ্রাফির দ্বারা যাচাই করা যেতে পারে।

যদিও ঐতিহাসিকরা ফটোগ্রাফকে পুরোপুরি নির্ভরযোগ্য উপাদান বলে মনে করেন না তা সত্ত্বেও যদি আমরা ফটোগ্রাফকে সমকালীন অন্যান্য উপাদানের দ্বারা যাচাই করে ইতিহাস লিখি তাহলে অবশ্যই একটি নির্ভরযোগ্য ইতিহাস রচনা করা সম্ভব হবে।  

3.অ্যার্নাল স্কুল’ কী?

1929 খ্রিস্টাব্দে ফ্রান্সের একদল ইতিহাসবিদ এবং অ্যানাল পত্রিকা গোষ্ঠীর উদ্যোগে সাধারণ মানুষের জীবন-জীবিকা ও তাদের জীবন সংগ্রামের কথা নিয়ে নতুনভাবে ইতিহাস চর্চা শুরু হয়। মার্ক ব্লখ ও লুসিয়েন ফেবর-এর উদ্যোগে ‘অ্যানালস অব ইকনমিক অ্যান্ড সোশ্যাল হিস্ট্রি’ নামে পত্রিকা প্রকাশের মধ্য দিয়ে এই গোষ্ঠী গড়ে ওঠে। এই গোষ্ঠীর ইতিহাসচর্চায় সমাজ, অর্থনীতি, সংস্কৃতি, সাধারণ মানুষ, পরিবার, মনস্তত্ত্ব প্রভৃতি বিভিন্ন বিষয় স্থান লাভ করে।

4.খেলার ইতিহাস চর্চার গুরুত্ব আলোচনা কর ?

আধুনিক ইতিহাসচর্চার এক অন্যতম দিক হলো খেলাধুলার ইতিহাসচর্চা। সুপ্রাচীনকাল থেকে শুরু করে বর্তমান পর্যন্ত খেলাধুলার ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব বিবর্তন ঘটেছে। একই সঙ্গে খেলাধুলার প্রকৃতি ও  পরিধিও ব্যাপক হয়েছে। বিবর্তনের সেই অজানা তথ্যই এই আধুনিক ইতিহাস চর্চার স্থান পেয়েছে।

গুরুত্ব হল:- 

1) কোন দেশ বা জাতির অতীত বিনোদন সম্পর্কে জানা যায়।

2) অতীতে কীভাবে খেলাধুলা সেই জাতির জাতীয়তাবাদ ও জাতীয় সংহতিকে শক্তিশালী করেছে তা উপলব্ধি করা যায়।

3) কোন দেশ বা জাতির জাতীয়তাবাদ, সাম্প্রদায়িকতা বা বিভিন্ন সামাজিক দিকও খেলাধুলাের মাধ্যমে প্রকাশ পায়।

5. নিম্নবর্গের ইতিহাস বলতে কি বোঝো?

1980-এর দশক থেকে ভারতসহ দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন ঐতিহাসিক ও গবেষকদের মধ্যে  জাতি, শ্রেণি, লিঙ্গ, ধর্ম প্রভৃতি নির্বিশেষে নিম্নবর্গের সাধারণ মানুষকে নিয়ে ইতিহাসচর্চা যথেষ্ট বৃদ্ধি পেয়েছে। এই ধারা নিম্নবর্গের ইতিহাসচর্চা বা সাবলটার্ন স্টাডিজ নামে পরিচিত। নিম্নবর্গের ইতিহাস চর্চার সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন ব্যক্তি হলেন অধ্যাপক রণজিৎ গুহ যাকে ভারতীয় নিম্নবর্গের ইতিহাস চর্চার জনক বলা হয় এছাড়াও, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, জ্ঞানেন্দ্র পাণ্ডে, শাহিদ আমিন, সুমিত সরকার, দীপেশ চক্রবর্তী, গৌতম ভদ্র প্রমুখ নিম্নবর্গের ইতিহাস নিয়ে আলোচনা করেন।

6.মানুষের পোশাক পরিচ্ছদের ইতিহাস কেন আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে দাঁড়িয়েছে?

আধুনিক ইতিহাস চর্চায় পোশাক পরিচ্ছদের ইতিহাস গুরুত্ব পেয়েছে কারণ মানুষের পোশাক পরিচ্ছদ থেকে ইতিহাসচর্চার যে ধরনের উপাদান বা  তথ্য পাওয়া যেতে পারে সেগুলো হল-

1) মানুষের আর্থসামাজিক অবস্থা

2) সামাজিক রুচিবোধ

3) সামাজিক উদারতার মাত্রা 

4) লিঙ্গবৈষম্য প্রভূতি সম্পর্কে জানা যায়। 

পোশাক পরিচ্ছদের ইতিহাসচর্চা বিষয়ক কয়েকটি গ্রন্থ হল মলয় রায়ের‘ ‘বাঙালির বেশবাস‘বিবর্তনের রূপরেখা’ কার্ল কোহলারের  “পোশাকের ইতিহাস” ইত্যাদি।

7.যানবাহনের ইতিহাস আলোচনার বিষয় হয়েছে কেন?

উঃ- আধুনিক ইতিহাসচর্চায় যোগাযোগ ও যানবাহন ব্যবস্থার গুরুত্ব অপরিসীম।

কারন-

i) যানবাহন ও যোগাযোগ এর ইতিহাস থেকে একটি দেশের অর্থনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্য সম্পর্কে জানা যায়,

ii) যানবহন ও যোগাযোগের উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ও প্রযুক্তি সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়।

iii) এছাড়াও এই বিবর্তন বিজ্ঞান-সমাজ ও সভ্যতাকে কতটা প্রভাবিত করেছে সে বিষয়ে জ্ঞান লাভ করা যায়।

8.শহরের ইতিহাস চর্চার গুরুত্ব আলোচনা করো?

আধুনিক ইতিহাসচর্চায় শহরের ইতিহাস গুরুত্বপূর্ণ কারন-

 i) শহরের ইতিহাসচর্চার ফলে শহরের পতনের কারণ, শহরের অদিবাসীদের জীবনযাত্রা, ব্যাবসাবাণিজ্য প্রভৃতি সম্পর্কে জানা যায়।

ii) শহরের ইতিহাসচর্চার ফলে পৌরশাসন, রাজনৈতিক ব্যবস্থা, স্থাপত্য, শিল্প-সংস্কৃতি, উন্নয়নের ধারা প্রভৃতির বিবর্তন প্রভৃতি বিষয়ে ধারণা পাওয়া যায়। 

শহরের ইতিহাসচর্চার সঙ্গে যুক্ত কয়েকজন গবেষক হলেন নিখিল সরকার, রাধারমণ মিত্র প্রমুখ উল্লেখযোগ্য।

9.পরিবেশের ইতিহাস চর্চার গুরুত্ব কি?

নতুন সামাজিক ইতিহাসের মূল বিষয় হলো মানুষের সঙ্গে জড়িত সামগ্রিক দিক। তাই এই ইতিহাসচর্চায় পরিবেশের ইতিহাসের গুরুত্ব পেয়েছে। প্রকৃতি জগতের সঙ্গে মানবসমাজের ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়ার ইতিহাসই হল পরিবেশের ইতিহাস। 1960 ও 1970-এর দশকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পরিবেশ সংক্রান্ত আলোচনা থেকেই পরিবেশের ইতিহাসচর্চা শুরু হয়েছে।

গুরুত্বঃ

   i) পরিবেশের উপর বিভিন্ন ঐতিহাসিক ঘটনার ক্ষতিকারক প্রভাব সম্পর্কে জানা যায়

  ii) পরিবেশ রক্ষার বিভিন্ন বিষয়ে সচেতন হওয়া যায়।

পরিবেশ বিষয়ক বহু গ্রন্থের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো রিচেল কার্সনের লেখা ‘দি সাইলেন্ট স্প্রিং’ এবং আলফ্রেড  ক্রসবির লেখা ‘ইকোলজিকাল ইম্পেরিয়ালিজম’

10.স্থানীয় ইতিহাসচর্চা বলতে কী বোঝায়?

যে ইতিহাস কোনো একটি ভৌগলিক স্থানের সঙ্গে জড়িত জনজাতি বা সম্প্রদায়ের খ্যাতি,শিল্প-স্থাপত্যের বিকাশ, লোক-পরম্পরা ইত্যাদির ওপর ভিত্তি করে গড়ে ওঠে তাকে ‘স্থানীয় ইতিহাস’ বলা হয়। এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক জীবনের পরিচয় পায় তাই আধুনিক ইতিহাসচর্চায় এটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদানরূপে স্বীকৃতি লাভ করেছে।

11.স্থানীয় ইতিহাসচর্চার গুরুত্ব লেখ

যে ইতিহাস কোনো একটি ভৌগলিক স্থানের সঙ্গে জড়িত জনজাতি বা সম্প্রদায়ের খ্যাতি,শিল্প-স্থাপত্যের বিকাশ, লোক-পরম্পরা ইত্যাদির ওপর ভিত্তি করে গড়ে ওঠে তাকে ‘স্থানীয় ইতিহাস’ বলা হয়। 

গুরুত্বঃ-

i)স্থানীয় ইতিহাসচর্চায় স্থানীয় জনগণের সুখ-দুঃখ, তাদের ঐতিহ্য-সংস্কৃতি, তাদের সামাজিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক জীবনের নানা দিক আলোচিত হয়, 

(ii) স্থানীয় ইতিহাসের ওপর ভিত্তি করেই জাতীয় ইতিহাস পূর্ণাঙ্গ রূপ লাভ করে।

Leave a Comment