ভূগোল নবম শ্রেণী ২ নম্বরের প্রশ্নোত্তর

           ভূগোল নবম শ্রেণী ২ নম্বরের প্রশ্নোত্তর

  1. পৃথিবী গোলাকার হলেও আমাদের কাছে সমতল মনে হয় কেন? 

উত্তরঃ- সুবিশাল পৃথিবীর আকৃতি গােলাকার। বিশাল বড়ো বৃত্তবা গােপীয় বস্তুর অতিসামান্য অংশ দেখলে যেমন সেটিকে সমতল মনে হয় তেমনি সুবিশাল পৃথিবীর অতি সামান্য অংশই আমাদের দৃষ্টিগােচর হয় বলে আমাদের কাছে পৃথিবী সমতল মনে হয়।

  1. দুজন ভারতীয় জ্যোতির্বিদ এর নাম লেখাে যারা প্রথমদিকে ধারণা করেছিলেন পৃথিবীর আকার গােল। 

উত্তরঃ- আর্যভট্ট ও বরাহমিহির প্রাথমিক অবস্থায় ধারণা করেন পৃথিবী গােপীয় আকৃতি বিশিষ্ট। 

  1. কোনাে প্ৰান থেকে ক্রমাগত একদিকে গেলে স্বস্থানে ফিরে আসতে হয় কেন? 

উত্তরঃ- পৃথিবীর আকৃতি গােল বলেই যে-কোনো পান থেকে ক্রমাগত যেদিকে যাওয়া যাক না কেন সেই স্থানেই ফিরে আসতে হয়।

  1.  ম্যাগেলান ও ড্রেক কভািবে প্রমাণ করেন পৃথিবীর আকৃতি গােল?

উত্তরঃ- পাের্তুগিজ নাবিক ন্যাগেলান এবং ইংরেজ নাবিক ড্রেক ক্রমাগত একদিকে জাহাজ চালিয়ে স্বচ্ছানেই ফিরে এসেছিলেন এর থেকে তাদের ধারণা হয় পৃথিবী গােল বলেই তৱা স্বনে ফিরে আসেন।

  1. যত উপরে ওঠা যায় দিগন্তরেখাৰ ৰিস্তুতি তত বাড়ে কেন? 

উত্তরঃ- পৃথিবী গােল বলেই যত উপরে ওঠা যায় ততই দিগন্তরেখার বিস্তৃতি বাড়ে এবং বেশি অঞ্চল আমাদের দৃষ্টিগােচর হয়।

  1. বেডফোর্ড লেভেল পরীক্ষা কি এবং এটি কে করেন?

উত্তরঃ- আলফ্রেড রাসেল ইংল্যান্ডের বেডফোর্ড খালের উপর নির্দিষ্ট দূরত্ব অন্তর তিনটি লাঠিকে একই সরলরেখায় ভাসিলে দিয়ে দূরবিনের মাধ্যমে দেখেন মাপের লাঠিটির উচ্চতা সামান্য বেশি। এর থেকে প্রমাণ হয় পৃথিবীর আকৃতি গোলাকার। 

  1. অভিগত গােলকরূপে পৃথিবী’ বলতে কী বােঝাে?

উত্তরঃ-পৃথিবীর আকৃতি ঠিক গােল নয়। পৃথিবীর মেরু ব্যাস ও পরিধি অপেক্ষা  নিরক্ষীয় ব্যাস ও পরিধি যথাক্রমে 43 কিমি ও 51 কিমি দীর্ঘতর। পৃথিবীর নিরখীয় অঞল স্ফীত ও মেরু অঞল চাপা। পৃথিবীর এই আকৃতি হল অভিগত গোলক।

  1. নিরক্ষীয় অঞ্চল অপেক্ষা মেরু অঞলে বস্তুর ওজন বেশি কেন?

উত্তরঃ-পৃথিবী অভিগত গােলক এবং পৃথিবীর নিরক্ষীয় অঞল স্ফীত ও মেরু অঞ্চল চাপা। ফলে অভিকর্ষজ বল নিরক্ষীয় অঞ্চলের তুলনায় মেরুতে বেশি বলেই অভিগত গােলক পৃথিবী বস্তুর ওজন নিরক্ষীয় অপেক্ষা মেরুতে বেশি। 

  1. জিয়য়েড (Geoid) কী?

উত্তরঃ-পৃথিবীর উপরিভাগ মসৃণ নয় এবড়াে খেবড়াে। পৃথিবীর এই বিশেষ আকৃতিকে বলা হয় জিয়য়েড। 

  1. কুলীন গ্রহ কী?

উত্তরঃ- সৌরজগতের যে সকল গ্রহ তার কক্ষপথের নিকটস্থ অঞ্চল থেকে মহাজাগতিক বস্তুকে সরিয়ে ফেলতে পারে তাদে বলা হয় কুলীন গ্রহ। সৌরজগতে মােট রয়েছে 5 টি কুলীন গ্রহ।

  1. বামনগ্রহ কি?

উত্তরঃ- সৌরজগতের যে সকল গ্রহ তার কক্ষপথের নিকটস্থ অঞ্চল থেকে মহাজাগতিক বস্তুকে সরিয়ে ফেলতে পারে তাদেরকে বলা হয় বামনগ্রহ। সৌরজগতে রয়েছে 8 (৮)টি বামন গ্রহ। 

  1. সৌরজগতের বামনগ্রহ গুলির নাম লেখাে। 

উত্তরঃ- প্লুটো, সেরেস, এরিস, হাউমেয়া ও মাকিমাকি—এই পাঁচটি হল বামন গ্রহ।

  1. প্লুটোর বর্তমান পরিচয় কী?

উত্তরঃ- প্লুটো আগে ছিল প্রধান গ্রহ। 2006 সালে International Astronomical Union (IAU) অনুযায়ী এটি বর্তমানে একটি বামনগ্রহ। 

  1. পৃথিবীকে নীলগ্রহ’ বলা হয় কেন?

উত্তরঃ- পৃথিবীর প্রায় 70% অঞল জলে ঢাকা। পৃথিবীতে রয়েছে 5 টি মহাসাগর। জলের উপস্থিতির জন্যই মহাকাশ থেকে পৃথিবীকে নীল রং এর দেখায়। তাই পৃথিবীকে বলা হয় নীলগ্রহ। 

  1. GPS কী?

উত্তরঃ-  মহাকাশে প্রেরিত কৃত্রিম উপগ্রহের মাধ্যমে ও উন্নত প্রযুক্তির সাহায্যে ভূপৃষ্ঠের কোনাে স্থানের অবস্থান নির্ণয়ের পদ্ধতি হল—Global Positioning System 

  1. GPS রিসিভার কী?

উত্তরঃ- এটি হল—GPS উপগ্রহগুলির সাথে সংযােগরক্ষাকারী অতি উন্নত প্রযুক্তির যন্ত্র যার সাহায্যে সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের অবস্থান (অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমার সাহায্যে) ও উচ্চতা জানা যায়।

  1. GPS রিসিভার থেকে কি কি বিষয় জানা যায়?

উত্তরঃ- GPS রিসিভার এর মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমা ও উচ্চতা তিনটি বিষয় জানা যায়

File Details –

PDF Name / Book Name ভূগোল নবম শ্রেণী ২ নম্বরের প্রশ্নোত্তর
Language : Bengali
Size : 109 kb
Download Link : Click Hereto Download

Leave a Comment